মহান ১০ ভাদ্র মুরশিদে করীম গাউসুল ওয়াক্ত হাদীয়ে যমান হযরতুল আল্লামা মাওলানা কাযী সৈয়্যদ হারূনুর রশীদ রাদ্বিয়ানহুল্লাহুল বারী’র বিলাদত শরীফ হারুয়ালছড়ি দরবার শরীফে ব্যাপক কর্মসূচীর মধ্যদিয়ে উদযাপিত হয়।

এ উপলক্ষে দরবারের সাজ্জাদানশীন পীরে ত্বরীক্বত হযরতুল আল্লামা মাওলানা শামসুদ্দীন মুহাম্মদ জাফর ছাদেক আল আহাদীর সভাপতিত্বে, মাওলানা মুহাম্মদ নুরুল আবছার হারূনীর সঞ্চালনায় আলােচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান আলােচক ছিলেন হযরতুল আল্লামা শাহযাদা মাওলানা সৈয়্যদ বোরহান উদ্দীন মুহাম্মদ শফিউল বশর, অন্যান্যদের মধ্যে আলােচনা করেন, মাওলানা ক্বারী মুহাম্মদ জহির উদ্দিন, মাওলানা সৈয়্যদ আহমদুল হক মাইজভাণ্ডারী।
উপস্থিত ছিলেন শাহযাদা মাওলানা মহিউদ্দিন মুহাম্মদ ছালেহ,শাহযাদা মাওলানা নজুম উদ্দিন মুহাম্মদ শামসুল হুদা, শাহযাদা মাওলানা আযম উদ্দিন মুহাম্মদ রেজাউল করিম, শাহযাদা মাওলানা জমির উদ্দীন মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম, জনাব শাহযাদা সৈয়্যদ জামাল উদ্দিন ফরহাদাবাদী, মাওলানা ক্বারী আব্দুল মালেক, মাওলানা আবু আলম ছিদ্দিকি, মাওলানা মুহাম্মদ হোসাইন ফারুকী, মাওলানা কাযী শরফুদ্দীন মুহাম্মদ আবু তাহের, মাওলানা সৈয়্যদ মুহাম্মদ শরীফ, মাওলানা মুহাম্মদ নুর হোসাইন, মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল বারী ও মাওলানা পিয়ারুল ইসলাম হারূনী সহ বহু ওলামায়ে কেরাম, শিক্ষাবিদ ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

বক্তাগণ আউলিয়ায়ুল্লাহদের সাহাচর্যের গুরুত্ব, দরবারের আদব ও সূফিয়ায়ে কেরামের আচারিত কর্মকাণ্ড বিশেষত: সাজদায়ে তাহিয়্যাহ নিয়ে অনাহূত বিতর্কের অবতারণা না করতে আহবান জানিয়ে দলিল প্রমাণালোক আলোচনা করেন।